More items from this sellerView All

চিনি ও ভেজাল মুক্ত পাটালি খেজুরের গুড়

Categories: , SKU: 0FC8501

৳ 350 ৳ 400

(5 reviews)

Reviews Summary by AI:

  • ১০০% চিনি মুক্ত
  • কোন রকম অপ্রয়োজনীয় কেমিক্যাল দেওয়া নাই
  • সম্পুর্ণ প্রিমিয়াম প্যাকেট করে ডেলিভারি দেওয়া হবে
  • সারা বাংলাদেশে ডেলিভারি চার্জ সম্পূর্ন ফ্রি
  • প্রতি কেজির মূল্য মাত্র 350/- টাকা

Description

শীতকালের প্রধান আকর্ষণ হলো খেজুরের রস ও খেজুরের গুড়। শীতের পিঠা পুলি তৈরিতে যেমন খেজুরের রস ও খেজুরের গুড়ের জুড়ি নেই। খেজুরের গুড়ের স্বাদ লাভের জন্য হেমন্তের শুরু থেকেই গ্রাম বাংলায় প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়। এ সময়ে গাছিরা (যারা খেজুর গাছে কেটে রস সংগ্রহ করে) বাড়িবাড়ি ঘুরে গাছ পর্যবেক্ষণ করেন এবং কোন কোন গাছ হতে রস সংগ্রহ করবেন তা নির্ধারণ করেন। গাছ কাটার জন্য সংগ্রহ করেন ধারালো কাঁচি, ছোট ও মাঝারি আকারের ঘটি/হাঁড়ি, মোটা রশি,  চুন ইত্যাদি। মাটির হাঁড়ি সমূহের বহিরাংশে চুন দিয়ে কয়েক দিন রৌদ্রে শুকিয়ে রস সংগ্রহের জন্য প্রস্তুত করেন। সেইসাথে শীতের শুরুতে ধারালো কাঁচি দিয়ে খেজুর গাছের পুরাfতন ডালা কেটে দেন।

খেজুরের গুড় পাটালি একটি পুষ্টিকর এবং স্বাস্থ্যকর পণ্য, এবং এর উপকারিতা অনেকগুলি রয়েছে:

  1. উচ্চ শক্তি সরবরাহকারী: খেজুরের গুড় পাটালি প্রাকৃতিকভাবে উৎপন্ন শক্তির একটি উত্কৃষ্ট উৎস। এটি কার্বোহাইড্রেট ও শক্তির সোর্স হিসেবে কাজ করতে সাহায্য করে।
  2. পুষ্টিশালী এবং ভিটামিন-মিনারেল সমৃদ্ধ: খেজুরের গুড়ে মিনারেলস এবং ভিটামিন প্রচুর থাকে, যা শরীরের পুষ্টি সরবরাহ করে। এটি আয়রন, পোটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স ইত্যাদি সরবরাহ করে।
  3. ডাইজেস্টিভ সিস্টেম সহায়ক: খেজুরের গুড় পাটালি ফাইবারের ভালো উৎস, যা ডাইজেস্টিভ সিস্টেমে সাহায্য করতে পারে এবং পোষণগুলি ভালোভাবে সম্প্রেষণ করতে সাহায্য করতে পারে।
  4. কলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্যকারী: খেজুরের গুড় পাটালি ফাইবারের উপস্থিতি কারণে এটি কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করতে পারে এবং হৃদরোগ উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে।
  5. আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা বা প্রচুরক হিসেবে ব্যবহার: খেজুরের গুড় পাটালি আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা বা প্রচুরক হিসেবে ব্যবহার হতে পারে, যেমন শারীরিক শক্তি উন্নত করা, ত্বক স্বাস্থ্য উন্নত করা ইত্যাদি।

এই সক্ষমতা সমৃদ্ধ খাদ্যটি মতামত, এককালের খাদ্য হিসেবে বা মিষ্টি হিসেবে অনেকগুলি সংস্কৃতি এবং খাদ্য প্রণালীতে ব্যবহৃত হতে পারে।

 

খেজুরের গুড় একটি পুষ্টিকর খাদ্য পদার্থ, যা খেজুর ফলকে মসৃণ অবস্থায় শক্তিশালী গুড়ে রূপান্তর করে। এটি দক্ষিণ এশিয়া, আফ্রিকা, ও মধ্যপ্রাচ্যে সাধারিত হয়ে থাকে। এটি খেজুর গাছের রস বা কণাবৃষ্টি হয়ে থাকে যা খোলা হয় এবং তারপরে শক্তিশালী গুড়ে রূপান্তরিত হয়।

খেজুরের গুড়ে প্রধানতঃ কার্বোহাইড্রেট, শক্তি, ফাইবার, পুষ্টিশালী খাদ্যদ্রব্য, মিনারেলস এবং ভিটামিন থাকে। এটি মুখ্যভাবে সক্তি উৎপন্ন করার জন্য ব্যবহৃত হয়।

খেজুরের গুড় হাঁড়িতে বা অন্যান্য খাদ্যে ব্যবহার করা হতে পারে। এটি একটি প্রাকৃতিক মিষ্টি বা শক্তির বোস্তাই হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। কিছু রেসিপি অনুযায়ী খেজুরের গুড় বিভিন্ন খাদ্যে বা ডিজার্টে ব্যবহার করা হয়ে থাকে, যেমন খেজুরের গুড় বারফি, খেজুরের গুড় হালুয়া, ইত্যাদি।

এটি তাপমাত্রা বা গুড়ি স্থিত দেশগুলিতে পাওয়া যায় এবং সংকীর্ণ অঞ্চলে এটি একটি পুষ্টিকর এবং মজাদার সহারা হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

খেজুরের গুড়ের উপকারিতা অনেকগুলি রয়েছে, যা নিম্নলিখিত:

  1. শক্তি সরবরাহকারী: খেজুরের গুড় মূলত কার্বোহাইড্রেট থেকে বর্তমান, যা শক্তি সরবরাহ করতে সাহায্য করে। এটি একটি দ্রুত শক্তির সোর্স হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে, এবং খুব শীঘ্রই শরীরে শক্তি প্রদান করতে সাহায্য করতে পারে।
  2. পুষ্টিশালী: খেজুরের গুড়ে মিনারেলস এবং ভিটামিন প্রচুর থাকে, যা শরীরের পুষ্টি সরবরাহ করে। এটি বিশেষভাবে আয়রন, পোটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স ইত্যাদি সহায়ক মিনারেল এবং ভিটামিন সরবরাহ করে।
  3. ডাইজেস্টিভ সিস্টেম সহায়ক: খেজুরের গুড়ে ফাইবার অনেক থাকে, যা ডাইজেস্টিভ সিস্টেমে সাহায্য করতে পারে এবং পোষণগুলি ভালোভাবে সম্প্রেষণ করতে সাহায্য করতে পারে।
  4. আয়ুর্বেদিক ব্যবহার: খেজুরের গুড়টি আয়ুর্বেদিক চিকিৎসার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হতে পারে। কিছু আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকরা খেজুরের গুড়কে শক্তিশালী এবং শারীরিক সুস্থতা উন্নত করতে ব্যবহার করে।
  5. কলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্যকারী: খেজুরের গুড়ে ফাইবার ও অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদানের কারণে এটি কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করতে পারে এবং হৃদরোগ উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে।

একটি মনে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ যে, খেজুরের গুড় মিষ্টি এবং শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, তবে এটি তার উচ্চ কার্বোহাইড্রেট এবং শুগার উপকারিতা থেকে একটি স্বজাত খাদ্য হিসেবে সতর্কতা নেতে পারে, যেহেতু এটি ডায়াবেটিসপীড়িত ব্যক্তিদের জন্য উপযুক্ত নয়।

খেজুরের গুড় দ্রব্যকে বিভিন্ন নামে বিপর্যস্ত করা হতে পারে, উপাদানটির বৈশিষ্ট্যে এবং তার ব্যবহারের উদ্দেশ্যে। তবে, এর জনপ্রিয় ও সাধারিত নামগুলি নিচে উল্লেখ করা হল:

  1. খেজুর গুড় বারফি
  2. খেজুর গুড় হালুয়া
  3. খেজুর গুড় লড়্ডু
  4. খেজুর গুড় পিঠা
  5. খেজুর গুড় বোন্ডি
  6. খেজুর গুড় ব্রাউনি
  7. খেজুর গুড় বিস্কুট
  8. খেজুর গুড় কেক
  9. খেজুর গুড় ছানার রোল
  10. খেজুর গুড় বোম্ব

উল্লেখিত নামগুলি সাধারিতভাবে খেজুরের গুড় পণ্যগুলির জনপ্রিয় নামগুলি, যা এই পণ্যগুলির বিভিন্ন রূপ বা রেসিপি পরিচিত করে।

5.0 Average Rating Rated (5 Reviews)

Rated
100%
Rated
0%
Rated
0%
Rated
0%
Rated
0%

Submit Your Review

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen + seven =

You have to login to add images.

  1. Emon Ali

    আমি ঢাকা থেকে https://cleansbuy.com/ এ খেজুরের গুড় অর্ডার করেছিলাম। সময়মত হাতে পেয়েছি গুড়গুলো ঠিক ছিলো, কোন ভেজাল ছিলো না।
    ধন্যবাদ CleansBuy কে।

    Helpful (0) Unhelpful (0)
  2. Md. Saykat Islam

    ১০০% খাঁটি কিনা তা বলতে পারবো না কিন্তু গুড়ের স্বাদটা আমার কাছে অনেক ভালো ছিলো এবং সঠিক সময়ে ডেলিভারি পেয়েছি।

    Helpful (0) Unhelpful (0)
  3. Md Azizur Rahman

    মনের মত নির্ভেজাল ও কেমিক্যাল মুক্ত গুড় পেয়েছি

    Helpful (0) Unhelpful (0)
  4. Md Azizur Rahman

    আলহামদুলিল্লাহ
    আপনাদের কাছে থেকে গুড় আমি মনের মত পেয়েছিলাম

    Helpful (0) Unhelpful (0)
  5. MD SHAKINUR RAHMAN

    আসলেই গুড়ের স্বাদটি অনেক ভালো ছিলো। টেস্ট করার জন্য ২কেজি নিয়েছিলাম।

    Helpful (0) Unhelpful (0)
          CleansBuy Online Shop 5.00 (7 Reviews)
          • Store Name: CleansBuy Online Shop
          Visit Store
          More Products